কালার ডেপথ

0

আমরা যখন বাস্তবে কোনো দৃশ্য দেখি সেখানে হাজার হাজার রঙ থাকে। ডিজিটাল ছবি এই বাস্তবিক রঙকে ফুটিয়ে তুলতে পারে। কিন্তু কতটা ভালো পারবে তা নির্ভর করে ক্যামেরা এবং সেটিংসের উপর। ছবির মধ্যে কি পরিমাণ কালার রয়েছে তাকে কালার ডেপথ বলে। আর পিক্সেলে লাল সবুজ ও নীল রঙ সংরক্ষণ করার জন্য কি পরিমাণ বিট ব্যবহার করা হয়েছে তা দ্বারা কালার ডেপথ নির্ধারণ করা হয়। JPEG ইমেজে প্রতিটি কালারের জন্য ৮ বিট ব্যবহার করা হয়। ছবিতে কত প্রকার রঙ আসবে তা নির্ণয় করার জন্য ২ এর ঘাত হিসেবে বিট সংখ্যাকে ব্যবহার করতে হবে।
যেমন
প্রতিটি কালারের জন্য ৮ বিট ২৫৬ ধরনের ব্রাইটনেস ক্যাপচার করে। কারণ, ২৮ = ২৫৬।
এবং তিনটি কালারের জন্য বিট মোট ২৪। তাহলে কালার ডেপথ ২২৪=১৬,৭৭৭,২১৬।
RAW ইমেজের ক্ষেত্রে কালার ডেপথের পুরোটাই থেকে যায়। RAW ইমেজের ক্ষেত্রে বিট সংখ্যা হয় ১৬। ছবির সকল কালার আপনি কাজে লাগাতে পারবেন। এডিটিং করার ক্ষেত্রে কালার ডেপথ যত বেশি হয় ততোই সুবিধা।

Comment

comments

Comments are closed.