QR code কি?

0

QR code বা কুইক রেসপন্স কোড এক ধরনের ম্যাট্রিক্স/ 2d বারকোড । সহজে বলতে গেলে আমাদের বহু পরিচিত বারকোডের এটি উন্নত সংস্করণ । QR কোডে মেসেজ, নম্বর বা অক্ষর দিয়ে তৈরী ডাটা, সাইটের ইউ-আর-এল(URL), ফোন নম্বর ইত্যাদি ছবির আকারে এনকোড করে রাখা হয় । যা প্রথমে ডিজাইন করে জাপানের জনপ্রিয় অটোমোবাইল কোম্পানি টয়োটার অধীনস্থ ডেনসো এবং তা পরে সারা জাপানে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠে আর বারকোড হচ্ছে এক ধরনের অপটিক্যাল মেশিন দ্বারা পাঠ যোগ্য লেবেল যাতে ওই পণ্য সম্পর্কিত তথ্য সংযুক্ত থাকে। তখন কুইক রেসপন্স কোড এ সঙ্কেতাক্ষরে লেখা কোন তথ্য নিদিষ্ট করে চারটি নমুনার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছিল, সংখ্যাসূচক, বর্ণ সূচক, বাইনারি (কম্পিউটার এর দ্বিপদ সঙ্কেত বা মেশিন ল্যাঙ্গুয়েজ), কান্দজি (এক ধরনের জাপানি লিপিবিদ্যা যা চায়না থেকে গ্রহণ করা) । কুইক রেসপন্স কোড অটোমোবাইল কোম্পানি গুলো ছাড়িয়ে সাধারণ বারকোড ইউ.পি.সি বারকোড এর তুলনায় ব্যাপক জনপ্রিয় হবার কারণ হচ্ছে এটার দ্রুত তথ্য পুনরুদ্ধার করার ক্ষমতা আর অনেক বেশি আকারে তথ্য ধারণ ক্ষমতার জন্য।

কুইক রেসপন্স কোড গঠিত হয়  সাদা পটভূমিতে বর্গাকৃতির গ্রিড এ সুবিন্যাসিত কালো উপাদান (বর্গাকৃতির বিন্দু) দিয়ে যা পড়া যায় যেকোনো ধরনের ক্যামেরা দিয়ে।

একটি QR Code কতটুকু ডাটা থাকে ?

একটি QR Code এ সর্বোচ্চ ৭,০৮৯টি নম্বর অথবা সর্বোচ্চ ৪,২৯৬টি ইংরেজি হরফ , বা ২,৯৩৫ বাইট বাইনারি তথ্য রাখা যায় । এই তথ্যের পরিমান নেহায়েত কম নয় । যেখানে একটি SMS এ সর্বোচ্চ ১৬০টি অক্ষর লেখা যায়, একটি টুইটে ১৪০ অক্ষর লেখা যায়, একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসে ৪২০ অক্ষর লেখা যায় সেখানে একটি QR Code এ ৪,২৯৬টি অক্ষর লেখা যায় !
QR code এর গঠনপ্রণালীঃ

কুইক রেসপন্স কোড তৈরি হয় সাদা বর্গাকৃতির বক্সে কত গুলো কালো বর্গের সমন্বয়ে। প্রতিটা বর্গ কে মডিউল বলা হয়। প্রতিটি কিউ. আর কোড এর  ভিতর নির্দিষ্ট কতগুলো মডিউল আছে যেগুলো পরিবর্তন,পরিবর্ধন অথবা মুছে ফেলা যায় না, অন্যথায় এ কোড স্ক্যান হবে না। নিচের ভিন্ন রঙ দ্বারা মার্ক করা টার্ম গুলো বিশ্লেষণ করা হচ্ছে :

QR Code গঠন প্রণালী

# লাল হাই লাইটেড বড় তিনটিবর্গ হচ্ছে পজিশন মার্কার। এটা স্ক্যানার কে বলে কোড এর শেষ প্রান্ত কোথায় ।

# ছোট লাল বর্গটি হচ্ছে এলাইনমেন্ট মার্কার। এটা স্ক্যানার কে মনে করিয়ে দেয় সবকিছু সঠিক ভাবে সাজানো আছে কিনা । বারকোড এ এরকম একাধিক বর্গ দেখা যেতে পারে।

# লাল ফালা গুলো যা পর্যায়ক্রমে কালো সাদা মডিউল এর উপর দিয়ে গেছে, এগুলাকে বলা হয় টাইমিং প্যার্টান । এগুলো সারি ও স্তম্ভ এর অবস্থান নির্দেশ করে।

# সবুজ অংশগুলো কোডটির প্রকার নির্দেশ করে। এইটা স্ক্যানার কে বলে এইটা কি ওয়েব সাইট না লিখিত বার্তা নাকি চাইনিজ সংকেত নাকি সংখ্যা না সব কিছুর সমন্বয়ে অন্য কিছু।

# নীল দাগ দেয়া মডিউল গুলো উল্লেখ করে ভার্সন নাম্বার।সাধারণত উন্নত ভার্সন গুলো তে মডিউল আরো বেশি থাকে( ভার্সন ৪০ এ ১৭৭x১৭৭ মডিউল থাকে)। যদি ভার্সন ৬ বা তার কাছাকাছি হয় তাহলে ভার্সন উল্লেখ এর দরকার পড়ে না।

# আর বাকি যা কোনও রঙ দ্বারা দাগ দেয়া নেই, এগুলো হচ্ছে  কোডটির মূল তথ্য যা ৮টি মডিউলের এর দল এ সাজানো থাকে অনেকটা জিগসাও পাজল এর মত করে।

 

QR code এর গুরুত্বঃ

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা আধুনিক স্মার্ট ফোন ব্যবহার করছে এবং এর সংখ্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে । সম্ভাবনাময় QR code বিশেষ প্রভাব রাখতে পারে আমাদের সমাজে বিশেষ করে বিজ্ঞাপন, বিপণন ও ভোক্তা সেবা এ, আর QR code আপনাকে পৌছে দিতে পারে এই সকল সেবার সমৃদ্ধশালী তথ্যভাণ্ডার এ মাত্র একটি স্ক্যান এই ।

 

QR code এর ব্যবহারঃ
সারা পৃথিবীতে হয়তো কুইক রেসপন্স কোড এর ব্যবহার এখনো সর্বজন বিদিত নয় তবে এই কোড দিয়ে অনেক ধরনের কাজ ই সহজে করা যেতে পারে। যেমন, ম্যাগাজিন বই এ বিজ্ঞাপন এর এর ব্যবহার করা যেতে পারে বা বিশেষ কোন প্রমোশনাল অফার, বিল বোর্ড এর এর ব্যবহার হতে পারে যা দিতে পারে আপনাকে তার ব্যবসার বিবরণ বা ধরন অথবা ঠিকানা এমনকি ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক পাওয়া যেতে পারে।  ওয়েব সাইট এমন কি টি-শার্ট এ এই কোড ব্যবহৃত হতে পারে যা থেকে আপনি পেতে পারেন তার ব্যক্তিগত বার্তা বা তার যোগাযোগ ঠিকানা অথবা ওয়েব এড্রেস । এমন কি বিজনেস কার্ড এর এর ব্যবহার হতে পারে ফোন নাম্বার কিংবা ই-মেইল এড্রেস সংরক্ষণ এর জন্যে।  আরো অনেক ভাবে চাইলে এর ব্যবহার করা যেতে পারে।

নিজেই তৈরী করুন নিজের QR কোড:

এই ওয়েব পেজ গুলো ওপেন করে দেখুন,খুব সহজেই তৈরি করতে পারবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত কুইক রেসপন্স কোড এবং ডাউনলোড ও করে নিতে পারেন যেকোনো ফরমেট এ।

কিভাবে এবং কোথায় পাবেন:

প্রথমে গুগল প্লে স্টোর এ যেয়ে QR Code reader লিখে এ্যপলিকেশনটি download করে install করে নিন। এবার এ্যপসটি open করে যে কোনো QR Code এর উপর ধরলেই বুঝতে পারবেন। আর এবার নিচের QR code টি আপনার মোবাইলে চেক করে দেখুন কি হয় ।

QR code clickntech.com

লিখেছেন : কনা (ঢাকা )

Comment

comments

Comments are closed.