ল্যাপটপ চুরি হতে পারে ? বাচার উপায়

0

ল্যাপটপ চুরি , ছিনতাই বা হারিয়ে যেতে পারে। তাই আগে থেকেই যদি কিছু ব্যাবস্থা আমরা নিয়ে নেই তাহলে ল্যাপটপটি ফেরত পাবার সম্ভাবনা কিছুটা হলেও থাকে। ক্ষতি হবার পর কান্না না করে চলুন কিছু ব্যাবস্থা নিয়ে নেই।

ল্যাপটপের লোকেশন ট্র্যাক প্রোগ্রামটি চালু করে নিন : কে আপনার ল্যাপটপ চুরি করেছে তা জানতে সবচেয়ে কার্যকরী উপায় আপনার ল্যাপটপে লোকেশন ট্র্যাক এর প্রোগ্রামটি সব সময় চালু রাখুন। এর ফলে অন্য কেউ ল্যাপটপটি কোনো ওয়াইফাই জোনে চালু  করলেই মুহূর্তেই খবরটি পেয়ে যাবেন আপনি। কারন লোকেশন ট্র্যাক জায়গাটি নির্দিষ্ট করবে পাশাপাশি ল্যাপটপের ওয়েবক্যামটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীর ছবি আপনাকে মেইলে দিয়ে দেবে।

ল্যাপটপ কপ ইনস্টল করে রাখুন : ল্যাপটপটিতে যদি ‘ল্যাপটপ কপ’ নামক প্রোগ্রামটি সব সময় ইনস্টল করে রাখেন তাহলে খুব সহজেই ব্যবহারকারীর কর্মকান্ড ইমেইলের মাধ্যমে ধরে ফেলা  সম্ভব । এটি আপনাকে ব্যবহারকারীর বিভিন্ন কর্মকান্ডের স্ক্রিনশট ই-মেইলে জানিয়ে দেবে। আর আপনি সেগুলো নিয়ে পুলিশের কাছে যেতে পারবেন।

সিরিয়াল এবং মডেল নম্বর নিরাপদে রাখা : ল্যাপটপের নিরাপত্তার জন্য সবসময় এর সিরিয়াল এবং মডেল নম্বরটি স্মরণে রাখুন বা কোথাও লিখে রাখুন। হারিয়ে যাওয়া ল্যাপটপটি উদ্ধারের সময় এই নম্বরগুলি আপনাকে যথেষ্ট সাহায্য করবে।

নিয়মিত পাসওয়ার্ড পাল্টান :  পাসওয়ার্ড কখনও ইনবক্সে সেভ করে রাখবেন না, এটি বিরাট ভুল আরো বড় ভুল হল ব্রাউজারে লগইন রিমেম্বার দিয়ে রাখা ।  পাসওয়ার্ডটি কিছুদিন পরপর পরিবর্তন করবেন। ঝামেলা হলেও কাজটি আপনার জন্য জরুরি।

তথ্যের ব্যাকআপ রাখবেন : ল্যাপটপ হারিয়ে গেলে সবার আগে টাকার ক্ষতি আমরা ভেবে থাকি কিন্তু এতে থাকা বিভিন্ন ডকুমেন্টস, ছবি হারিয়ে যাওয়া আরও বেশি কষ্টের । তাই আপনার ল্যাপটপে থাকা যাবতীয় কিছুর ব্যাকআপ রাখুন। ল্যাপটপ চুরি হলেও তথ্য যেন না হারায়।

 

পাঠিয়েছেন :- কবির ( নাটোর )

নির্বাচিত লেখা আমরা পেয়ে থাকি অপরিচিত মাধ্যম থেকে, এর কোন বিষয় যদি কারও কোন আপত্তি থাকে আমাদের জানানোর অনুরোধ রইলো।

Comment

comments

Comments are closed.