career suggestions

অটোক্যাড Career Suggestions

সময়ের সঙ্গে বাড়ছে চাকরি বাজারের প্রতিযোগিতা। পড়াশোনা শেষ করার পরও মিলছে না চাকরি নামের সোনার হরিণের দেখা। এই চিত্রের বিপরীতে অনেকে আবার পড়ালেখার পাশাপাশি ভালো বেতনের পার্টটাইম চাকরিও করছেন। এ জন্য প্রয়োজন হয় আলাদা কিছু যোগ্যতার। দরকার হয় আলাদা কিছু কোর্স করার। তাদের জন্য একটি কোর্স অটোকেড। সিভিল ইঞ্জিয়ারিং তথা বিল্ডিংয়ের ডিজাইন কম্পিউটারে ভিজ্যুয়াল করা যায় অটোকেড দিয়ে। সারা বিশ্বে বর্তমানে বড় বড় স্থাপনার ডিজাইন প্রথমে কম্পিউটারের অটোক্যাডের মাধ্যমে করা হয় এবং ওই অনুযায়ী স্থাপত্য নির্মাণ করা হয়। নকশা ও প্রকৌশলের ক্ষেত্রে যে কোনো ছোট-বড় নিখুঁত বিষয় অটোক্যাড এর মাধ্যমে যাচাই করে নেওয়া হয় ফলে সময়, শ্রম ও অর্থের সাশ্রয় হয় বলেই সারাবিশ্বে এর চাহিদা বেড়েই চলছে। যারা প্রকৌশলে ক্যারিয়ার শুরু করছেন বা করবেন অথবা আগে থেকেই এই ক্ষেত্রে আছেন তাদের প্রকৌশলী হিসেবে নিজস্ব কাজের ক্ষেএে অবস্থান দৃঢ় করার জন্য অটোক্যাড এর পরিপূর্ণ ব্যাবহার জানা অবশ্যই জরুরি।

এমনকি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অটোক্যাড সফটওয়্যার আপডেট করার মাধ্যমে ইলেক্ট্রনিক ও মেকানিক্যাল ডিজাইন করা যায়। শুধু কি তাই! শুটিং সেট নির্মাণসহ বিভিন্ন ডিজাইনে সঠিক পরিমাপ দেয়ার ক্ষেত্রে অটোক্যাডের তুলনা নেই। অটোক্যাড অপারেটর বহুজাতিক ব্যবসা ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ডিজাইন বিভাগ, পোশাক শিল্পসহ অন্যান্য শিল্পে ডিজাইনের জন্য এর কদর রয়েছে। এ ছাড়া রিয়েল এস্টেট কোম্পানি, আর্কিটেকচার ফার্ম, এড ফার্ম, ডিজাইন হাউস, ইলেক্ট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল ডিজাইন ফার্মে কেড অপারেটরের চাহিদা রয়েছে। পাশাপাশি আজকাল বিভিন্ন শপ ও মলে অটোক্যাডের কাজের ক্ষেত্র বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতিষ্ঠিত ডিজাইন হাউসে কেড অপারেটর ও ডিজাইন পরামর্শকের কদর রয়েছে, এমনকি ব্যক্তিগত পর্যায়ে ফার্ম খুলে স্বাধীনভাবে ডিজাইনসহ বিভিন্ন সেবা দিতে পারেন। তাছাড়া ওডেক্স ও ফ্রিল্যান্সারসহ বিভিন্ন অনলাইন আর্নিং সাইট তো আছেই, যেখানে একজন কেড ডিজাইনার তার সৃষ্টিশীলতা দিয়ে প্রতি মাসে আয় করতে পারেন ১ থেকে ৫ লাখ টাকা মানে কাড়ি কাড়ি টাকা।
অটোক্যাড একটি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিজাইন প্রোগ্রামের নাম। অটোক্যাড সফটওয়্যারটি ব্যবহারকারীর অত্যন্ত বন্ধুত্বসুলভ সফটওয়্যার এবং এটি সবার জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ C++ দিয়ে তৈরি। যার সহায়তায় ডিজাইনার ও ইঞ্জিনিয়াররা সহজেই দ্বিমাত্রিক (2D) এবং ত্রিমাত্রিক (3D) ডিজাইন তৈরি করতে পারে এবং যে কোনো যন্ত্রের স্থানান্তরযোগ্য পার্টস ডিজাইন করতে পারে। বর্তমানে স্থাপত্য প্রকৌশল শিল্প ও ইঞ্জিনিয়ারিং কাজের ক্ষেত্রে অটোক্যড গুরুত্বপূর্ন স্থান করে নিয়েছে।
ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ক্ষেত্রে যে কোনো প্রকার ডিজাইন করা বা প্রটোটাইপিং একটি সময়সাপেক্ষ ও কঠিন বিষয়। অন্যদিকে ম্যাকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ক্ষেত্রে বিভিন্ন পার্টসের সমন্ময়ে একটি যন্ত্র তৈরি করতে হয় সেজন্য কাগজে ডিজাইন অনেকটাই জটিল। অটোক্যাডের সাহায্যে সহজেই ডিজাইনের জটিল বিষয়গুলো পরীক্ষা করে দেখা যায় 2D ও 3D ব্যবহার করে, যার ফলে সত্যিকারের স্থাপনা তৈরির আগেই এর পরিপূর্ন ডিজাইন তৈরি করে নেওয়া যায় এবং ডিজাইনের পরিমাপও ঠিক পাওয়া যায়। অটোক্যাড ব্যাবহার করে সহজেই ডিজাইনের ভূল বের করা যায় । ইঞ্জিনিয়ারিং কাজের ক্ষেত্রে ডিজাইনসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও গবেষণা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, বাস্তবে অনেক ব্যায়বহুল সত্যিকারের স্থাপনা বা যন্ত্রপাতির ওপর পরীক্ষা নিরীক্ষা করা । যা অটোক্যাড ব্যবহার করে নিমীষেই সমাধান করা সম্ভব। ফলে সহজেই একজন ডিজাইনার তার ডিজাইনের বিভিন্ন অংশ পরিবর্তন করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে পরেন, এতে যেমন তার ডিজাইনের নতুনত্ব আসে তেমনি অর্থেরও সাশ্রয় হয়। বাস্তবে সত্যিকার নমুনা বা প্রটোটাইপ তৈরি করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন কিন্তু অটোক্যাড ব্যাবহার করে অতি অল্প সময়েই যে কোনো কিছুরই নমুনা ডিজাইন তৈরি করে ফেলা যায় এবং ডিজাইনটির বিভিন্ন প্রয়োজনীয় দিক পরিবর্তন খুব সহজেই ও দ্রুততার সাথে করে ফেলা যায়। যা ডিজাইনারদের অনেক মূল্যবান সময় বাঁচাতে সাহায্য করে। ডিজিটাল ফরম্যাটে ডিজাইনকৃত মডেল সংরক্ষণ করে একাধিক ইঞ্জিনিয়ার একটি ডিজাইনের ওপর কাজ করে ডিজাইনটিকে পরিপূর্ণ করতে পারে এবং অন্য যে কোনো ব্যক্তির কাছেও সহজেই তা পাঠাতে পারে।
বিশ্বায়নের এই যুগে অটোক্যাড এর মাধ্যমে একজন ডিজাইনার সহজেই অন্য ডিজাইনারের সাথে তার ডিজাইনটির বিভিন্ন অংশ নিয়ে আলোচনা করতে পারে এবং বিভিন্ন ধারনার সমন্ময়ে একটি পরিপূর্ণ ডিজাইন তৈরি করা অনেক সহজ হয়। নিজেদের সুবিধার জন্যই প্রকৌশলী ও ডিজাইনারদের অটোক্যাড শেখা প্রয়োজন। আমাদের দেশে কাজের পাশাপাশি অটোক্যাডের মাধ্যমে বহির্বিশ্বেও ইঞ্জিনিয়ার ও ডিজাইনারদের রয়েছে কাজের অনেক সুযোগ।
ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকার জন্য। আমাদের কমেন্ট করুন , লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং আগামি ভিডিওতে আমাদের সাথে থাকতে অবস্যই সাবস্ক্রাইব করুন এখনি। ভালো থাকুন, সৃষ্টিশীল থাকুন আর নিজের মনমত পেশায় নিজেকে গড়ে তুলুন।

Comment

comments

What's your reaction?

Excited
2
Happy
1
In Love
0
Not Sure
0
Silly
0

Comments are closed.

Next Article:

0 %